March 2018
চ্যানেল ২৪ এর জাগো বাংলাদেশ নামক অনুষ্ঠানে মেয়েদের পোশাক নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করার কারনে সমালোচনার মুখে পড়েন অভিনেতা মোসারফ করিম। ফেইসবুক সহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার ছবিতে জুতাপেটা করার ছবিও পাওয়া গেছে। গতকাল ২৩ মার্চ রাত ২ঃ২৪ মিনিটে তিনি তার ফেরিফাইড পেইজে সকলের উদ্দেশ্যে ক্ষমা প্রার্থনা করেন। তার লেখা হুবুহু তুলে ধরা হল
চ্যানেল ২৪ এর আমার উপস্থাপিত একটি অনুষ্ঠানের একটি অংশে আমার কথায় অনেকে আহত হয়েছেন। আমি অত্যন্ত দুঃখিত। আমি যা বলতে চেয়েছি তা হয়ত পরিষ্কার হয়নি। আমি পোষাকের শালীনতায় বিশ্বাসী। এবং তার প্রয়োজন আছে। এই কথাটি সেখানে প্রকাশ পায়নি। ধর্মীয় অনুভূতি তে আঘাত করা আমার অভিপ্রায় না। এ ভুল অনিচ্ছাকৃত । আমি অত্যন্ত দুঃখিত । দয়া ক রে সবাই ক্ষমা করবেন ।



 

ভিডিওঃ


মিমজাল হোসেন অনিক


দুরন্ত বার্তা, ২৪ মার্চ ২০১৮

নপ্রিয় অভিনেতা মোসারফ করিম নারীদের পোশাক নিয়ে সমালোচনা করে সে এখনকার সামাজিক যোগাযোগের সমালোচনার প্রধান কেন্দ্র হয়ে দারিয়েছে। মোসারফ করিম চ্যানেল২৪ এ জাগো বাংলাদেশ নামক এক অনুষ্ঠানে বোরখা নিয়ে মন্তব্য করে বলেন পোশাক নারী নির্যাতনের জন্য দায়ী নয়। এ ধরণের পোশাক দিয়ে মেয়েদের এক ধরণের বন্দি করে রাখা হয়েছে। এই সব পোশাক পড়ানোর জন্য যারা জোর দেয় তারা নিজেদের সাথে পেরে উঠে না বলেই তারা এ ধরণের পোশাকের পক্ষে কথা বলে । এই ঘটনার পরে তাকে নিয়ে শুরু হয়ে সামাজিক যোগাযোগে সমালোচনার ঝর। তাকে জুতা পেটা করে ভিডিও পোষ্ট করেন অনেকেই। সেই সাথে দেখা যায় তার ছবিতে জুতা মেরে অনেকেই ফেইসবুকে আপলোড দেয়। তাদের একটি কথা। তুমি মানো না তোমার ব্যাপার। আরেক জনের ব্যাক্তিগত বিষয়ে কথা বলার তুমি কে? মোসারফ করিম পোশাক নিয়ে কথা বলে যে সমালোচনার মুখে পরেছে। দেখা যাক তার শেষ কোথায় হয়। তবে সমাজের অনেকেই তার এই ধরণের মন্তব্যকে সমর্থন করছেন না। তারা বলে যারা অভিনয় জগতে কাজ করে তারা স্বাভাবিক জনগণের তুলুনায় অনেকটাই খোলা মেলা পোষাকে পর্দায় আসে। তার এ ধরণের মন্তব্য করা বেমানান। এ ছাড়া অনেকেই তার এ ধরণের মন্তব্য এর জন্য বিচারের দাবি জানান। কিছু প্রবাসী তার বিরুদ্ধে প্রতীবাদ স্বরূপ কিছু ভিডিও পোষ্ট করেন।

ভিডিওঃ

আল্টারনেটিভ ভিডিওঃ



ছবিঃ ফেইসবুক থেকে নেয়া


দুরন্ত বার্তা, ২৩ মার্চ ২০১৮

জিমপুরের বড় হুজুর মরহুম মাওলানা আব্দুল্লাহ সাহেব প্রতিষ্ঠিত ও জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের সাবেক খতীব মরহুম মাওলানা উবায়দুল হক সাহেব কর্তৃক পরিচালিত মাদরাসা ফয়জুল উলুম ১৯৭৫ সাল থেকে সুনামের সহিত ইসলামী শিক্ষা প্রদান করে আসছে। ঐতিহ্যবাহী আজিমপুর কবরস্থান সংলগ্ন মাদরাসা ফয়জুল উলুম,আজিমপুর, ঢাকা এর উদ্যোগে ১৪৩৮ -১৪৩৯ শিক্ষাবর্ষের দাওরায় হাদীস (মাষ্টার্স) ও হিফজুল কুরআন সমাপনকারী ছাত্রদের মাঝে পাগড়ী প্রদান ও দোয়া মাহফিল গতকাল ২০ মার্চ ২০১৮ তারিখে অনুষ্ঠিত হয়।




মাদরাসার ফারেগীন ছাত্রগণ বাংলাদেশ তথা সারাবিশ্বে অত্যন্ত সুনামের সাথে দ্বীনি দায়িত্ব পালন করছে। প্রতি বছরের ন্যায় এবারও মাদরাসা থেকে ১৯ জন মাওলানা ও ১২ জন হাফেজ ছাত্রকে পাগড়ী প্রদান করা হয়। উক্ত পাগড়ী প্রদান মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন নূরীয়া মাদরাসার (কামরাঙ্গীরচর) ও অত্র মাদরাসার প্রবীণ শায়খুল হাদীস হযরত মুফতী মাওলানা সোলাইমান নোমানী সাহেব,গওহর ডাঙ্গা ও অত্র মাদরাসার সিনিয়র শায়খুল হাদীস মুফতী মাওলানা আব্দুর রউফ (ঢাকার হুজুর) সাহেব। বিশেষ দ্বীনি বয়ান প্রদান করেন বড় ভাট মসজিদের (লালবাগ) ইমাম ও খতীব মুফতী মাওলানা তানভীর আহমাদ সিদ্দিকী সাহেব ও আরো অন্যান্য ওলামায়ে কিরাম ফারেগীন ছাত্রদের মাঝে গুরুত্বপূর্ণ নসিহত পেশ করেন। উক্ত মহতী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মাদরাসার সাধারন সম্পাদক ও মুহতামিম হযরত হাফেজ মাওলানা ছাখাওয়াতুল্লাহ সাহেব।




নাইম হোসেন সেলিম

দুরন্ত বার্তা, ২০ মার্চ ২০১৮
ড়ঋতুর বাংলাদেশে শীতের পরেই শুরু হয় গরমের প্রখরতা। বাংলাদেশে এই সময়ে সূর্য খাড়া ভাবে কিরণ দেয়। তাই আমাদের বাংলাদেশে প্রচুর তাপের বৃদ্ধি পায়। এ সময়ে আমাদের শরীরীয়ের ঘামের পরিমাণ বেশি হয়, যার ফলে আমাদের শরীর থেকে প্রচুর পানি বেরিয়ে যায়। আর সেই ঘাটতি পূরণের জন্য আমাদের প্রতিদিন পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পান করা উচিত ।

তবে কি পরিমাণ পানি এই গরমে পান করা উচিত তা আমাদের জেনে নেওয়া উচিত। আসুন আজ আমরা জেনে নেই এই গরমে আমাদের কি পরিমাণ পানি পান করা উচিত এবং ঠান্ডা পানি বেশি গ্রহনে কি ধরনের ক্ষতি হতে পারে।


প্রথমে জেনে নেই দৈনিক কতটুকু পানি আমাদের খাওয়া উচিতঃ এক জন সুস্থ মানুষের প্রতিদিন নুন্যতম ২ লিটার পানি পান করা উচিত। যদি এর থেকে কম পানি পান করে। তবে তার শরীরে জ্বালা পোড়া থেকে বিভিন্ন সমস্যা দেখা দিতে পারে। অনেকে পানির পাশাপাশি কোমোল পানিয় ফলের জুস ও অন্যান্য তরল গ্রহন করে থাকে। সে ক্ষেত্রে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে যাতে অতিরিক্ত পানি পান করা না হয়। অতিরিক্ত পানি পান করলে কিডনির বিভিন্ন সমস্যা দেখা দিতে পারে। যাদের গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা রয়েছে তারা সকালে খালি পেটে পানি পান করবেন। পানি পান করার পরে অন্তত ২০-৩০ মিনিট বিরতি নিতে হবে।



খাবার খাওয়ার সময় পানি পান না করাই ভালো কেননা খাবার সময় পানি পান করলে জারক এসিড পাতলা হয়ে যায় ।

ঠান্ডা পানি যত সম্ভব পরিহার করুণ। গরমে অনেকেই ঠাণ্ডা পানি বা আইস শরবত খেয়ে থাকেন। কিন্তু এতে করে রক্তনালী সংকুচিত হতে পারে। এছাড়া খাদ্য হজমে সমস্যা পুষ্টিগুণ শোষণে বাধার সৃষ্টি করতে পারে। ফলে ডিহাইড্রেশন নামক রোগ হতে পারে।

কাজেই যত সম্ভব ঠাণ্ডা পানি গ্রহণের ব্যাপারে সতর্ক থাকুন ।



দুরন্ত বার্তা, ঢাকা - ১৯ মার্চ ২০১৮

  • প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় জামালপুর পৌরসভার রশিদপুরে এক ছাত্রের মুখে এক ছাত্রী এসিড নিক্ষেপ করেছে বলে অভিজোগ পাওয়া গেছে। মাহমুদুল হাসান মারুফ নামের ঐ ছেলে জানায়, মেয়েটি তাকে বার বার প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিলো ৷ কিন্তু সে তাতে রাজী হয়নি ৷



এই ঘটনাটি ঘটে বৃহস্পতিবার রাতে ৷ ঘটনার দিন রাত ৯টার দিকে বন্ধুদের সাথে ঐ মেয়ে রিয়ার বাড়ির পাশ দিয়ে যাচ্ছিলো মারুফ ৷ তখন তাকে বিদ্যুত লাইন ঠিক করে দেবার অজুহাতে বাড়িতে ডাকে রিয়া ৷ কিন্তু মারুফ সেখানে যেতে অস্বীকার জানায় ৷ তখন হঠাৎ ঐ মেয়ে মারুফের মুখে তরল জাতীয় তথা এসিড নিক্ষেপ করে ৷ মারুফ তখন চিৎকার দিয়ে দৌড় দেয় ৷ এলাকাবাসী তাকে এসে উদ্ধার করে ৷ এতে মারুফের চোখ বাদে সমস্ত মুখ ঝলসে যায় ৷ সেই সাথে তার কাধেও কিছুটা ঝলসে যায় ৷ শুক্রবার আহত ছাত্র মারুফকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে নেয়া হয়।

মারুফ জামালপুর সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজে ইলেকট্রনিকস টেকনোলজির প্রথম বর্ষের ছাত্র। অপরদিকে ঝাউগড়া কলেজের এইচএসসি প্রথম বর্ষের ছাত্রী ভাবনা আক্তার রিয়া ৷

এ ঘটনায় মারুফের বাবা দুদু মিয়া বাদী হয়ে জামালপুর সদর থানায় মামলা করেছেন। ছাত্রী ভাবনা আক্তার রিয়া ও তার মা হাসি বেগম সুজেদাকে আটক করেছে পুলিশ।

তবে রিয়া জানায় সে মারুফকে চিনে না ৷ আর ঘটনার রাতে তারা ঘুমিয়ে ছিলো ৷ তাদের ফাসানো হচ্ছে৷


শ্রীলংকার বিরুদ্ধে নিদাহাস কাপ ২০১৮ এর ৬ তম ম্যাচে বাংলাদেশ ২ উইকেটে জয় লাভ করেছে ।

১৬০ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে টাইগাররা ১ বল ও ২ উইকেট হাতে থাকতেই জয় লাভ করে । এর মদ্ধ দিয়ে বাংলাদেশ নিদাহাস কাপের ফাইলানে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে । তামিম ইকবালের ৫০ রান এবং মাহমুদুল্লার ৪৩ রানের গতীতে বাংলাদেশ ফাইনালে । তামিম ইকবাল ৪২ বল থেকে ৫০ রান তুলে নেন । মাত্র ১৮ বল থেকে ৪৩ রান করেন মাহমুদুল্লা। এ ছাড়া মুশফিকুর রহিম ২৫ বল থেকে ২৮ রান করেন । সাব্বির রহমান ৮ বল থেকে ১৩ রান করেন । সৌম্য সরকার ১১ বল থেকে ১০ রান করেন। সাকিব-আল হাসান ৯ বল থেকে ৭ রান করে সাজ ঘরে ফিরে যান ।

 

শ্রীলংকার পক্ষে ধানাঞ্জয় ২টি আপন্সো ১টি গুনাথিলাকা ১টি জীবন মেন্ডিস ১টি উদানা ১টি করে উইকেট পান ।




মিমজাল হোসেন অনিক


দুরন্ত বার্তা

নিদাহাস কাপ ২০১৮ এর ৫ম ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশ ১৭ রানে বাংলাদেশের হার।  ব্যাটিং এ নেমে ২০ ওভারে ১৭৭ রানের টার্গেট দেয় ভারত। এর মধ্যে রহিত এবং সুরেস রাইনা ৩০ বলে ৪৭ রানের পার্টনারশিপ করেন।  রহিত সার্মা ৮৯ এবং রাইনা ৪৭ রান করেন । বাংলাদেশের পক্ষে মুশফিকুর রহিম একাই ৫৫ বলে ৭২ রান করেন । এ ছাড়া তামিম ইকবাল ২৭ সাব্বির রহমান ২৭ রান করেন । এ ছাড়া তেমন কেউ ই দাড়াতে পারেনি ক্রিজে । এই ম্যাচের মদ্ধ দিয়ে নিদাহাস কাপ ২০১৮ এর ফাইনালে যাওয়ার সবুজ সংকেত পেল ভারত ।


মিমজাল হোসেন অনিক


দুরন্ত বার্তা, ঢাকা

লবার্ট আইন্সটাইনের পর পৃথিবীতে সবচাইতে বড় পদার্থবিজ্ঞানী হিসেবে যাকে আজ অবধি মানা হয়, তিনি হচ্ছেন স্টিফেন হকিং। তবে পদার্থবিজ্ঞানী হিসেবে পরিচিতি ঠিক যখন থেকে তিনি সারা বিশ্বে পেতে শুরু করেন ততদিনে মোটর নিউরন ব্যাধির আক্রান্ত হয়ে তিনি হুইল চেয়ারে বসে গিয়েছেন সারা জীবনের জন্যে।

মাত্র ২১ বছর বয়সে এই ব্যাধিতে আক্রান্ত হলেও সে রোগ নিয়ে তিনি বেঁচে ছিলেন আরো ৫২ টি বছর , যেখানে এ রোগ নিয়ে ১০ বছরের বেশী বাঁচতে দেখা যায় শতকরা মাত্র ১০ শতাংশ মানুষকে...



কিন্তু তিনি কেবল তার হুইল চেয়ারকেই শুধুমাত্র তার বাসস্থান বলে মেনে নেননি। হুইল চেয়ারে বসেও তিনি চষে বেড়িয়েছেন পুরো মহাবিশ্ব। দিয়েছেন সিঙ্গুরাটি (বিগ ব্যাং) থিওরীর সহজ ব্যাখ্যা । এবং সেটিই ৭০ এর দশকে তার দিকে সারা পৃথিবীর অন্য সুস্থ্য সবল বাঘা বাঘা পদার্থবিজ্ঞানীদেরও ভুরু কুঁচকে তাকাতে বাধ্য করে।


তার ঠিক চার বছর পরই তিনি জোতির্বিদ্যায়  দিলেন ব্লাক হোল নিয়ে আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ ব্যাখ্যা । কোয়ান্টাম থিওরী প্রয়োগ করে প্রমাণ করেছেন যে ব্লাক হোলের মত শক্তিধর কিছুও একটি সময়ে কিভাবে তাপ বিকিরন করে অদৃশ্য হয়।

এছাড়াও তিনি কাজ করেছেন কোয়ান্টাম ফ্লাকচুয়েশন, কজমিক ইনফ্লেশন, ওয়ার্মহোল সম্পর্কিত জোতির্বিজ্ঞানের বহুল আলোচিত বিষয়গুলো নিয়ে।

স্টিফেন হকিং আলোচনার তুঙ্গে আসেন "এ ব্রিফ হিস্ট্রি অব টাইম" গ্রন্থটি রচনা করে। আশির দশকের শেষদিকে বইটি যখন প্রকাশিত হয়, সারা বিশ্বে বিজ্ঞানপ্রেমীদের মহলে রীতিমত বইটি নিয়ে হইচই পড়ে যায়। টানা ২৩৭ সপ্তাহ সানডে টাইম বেস্ট সেলার থাকার কারনে গিনেজ বুকে এখনো সেটি ওয়ার্ল্ড রেকর্ড হিসেবে রয়েছে..

পৃথিবীতে অনেক পদার্থবিজ্ঞানী হয়তো আসবেন। তবে টমাস আলভা এডিসন, আলবার্ট আইন্সটাইন, কিংবা স্টিফেন হকিং এর মত এ শতাব্দিতে হয়তো কেউ আসবে না। কারন এডিসন আইন্সটাইন কিংবা হকিংরা আসেন শতাব্দিতে খুব গুটিকয়েক সংখ্যায়...

এডিসন কিংবা আইন্সটাইন বহু আগেই আমাদের মাঝ থেকে বিদায় নিয়েছেন। দীর্ঘ ৫২ টি বছর হুইল চেয়ারে বসে থাকতে থাকতে আজ ১৪ মার্চ ২০১৮ তে স্টিফেন হকিংও সে পথের পথযাত্রী হলেন...

শেষে একটি কাকতালীয় ব্যাপার বলে যাই। আজ ১৪ ই মার্চ। আজ যেমন স্টিফেন হকিং এর মৃত্যুদিন, ঠিক তেমনি পৃথিবীর সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বিজ্ঞানী আলবার্ট আইন্সটাইনের জন্মদিন। ঠিক তেমনি আবার আজ হচ্ছে পাই ( π ) দিবস  । পাই দিবস হিসেবে এই দিনটিকে বেছে নেয়ার পেছনে একটি কারন রয়েছে। আমরা সবাই জানি যে π এর মান সর্বদা ৩.১৪.... ।





ছবিঃ ফেইসবুক

আমরা যদি কখনো কোন তারিখ লিখতে যাই, তবে সর্বপ্রথম তারিখটা লিখি, তারপরে লিখি মাস, এরপর বছর। অর্থাৎ , আমাদের নিয়মানুযায়ী আজকের তারিখ আমরা লিখি এভাবে.. ১৪.৩.২০১৮ । কিন্তু ইংরেজি তারিখ লিখার ক্ষেত্রে পশ্চিমা বিশ্বে সর্বদা মাস আগে লিখা হয়ে থাকে, তারিখ লিখা হয় তারপর। সে হিসেবে আজকের তারিখটিকে তাদের নিয়ম অনুযায়ী লিখা যায় ৩.১৪.২০১৮ । এখন শেষের দিকের সালটুকু যদি আমরা লিখার সময় বাদ দিই, তবে সেটি দাঁড়ায় ৩.১৪.. যা π এর মান..  ।

পাই দিবস হিসেবে এ দিনটিকে চিহ্নিত করার কারন মূলত এটুকুই.. 


বিজ্ঞানের সাথে এতটা নিবিড় সম্পর্ক এবং টান থাকার কারনেই  এই প্রতিতাভান বিজ্ঞানী এবং লেখক ঠিক এরকম একটি দিনেই মৃত্যু বরন করেছেন  কিনা আমাদের কারো জানা নেই...

শুধু এটুকু জানি.. পৃথিবী কিছু একটা হারিয়েছে। যে হারানো জিনিসটি যেকোন কিছুর বিনিময়েই অপূরণযোগ্য..

যে মহান বিজ্ঞানীটি আজ পৃথিবী ছেড়েছেন.. তার প্রতিও শুভকামনা.

মনির হোসেন


রহস্যময় বিশ্ব বিখ্যাত বিজ্ঞানী স্টিফেন হকিং আর বেছে নেই। আজ বুধবার ১৪ মার্চ তিনি চির দিনের জন্য চলে গেলেন পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করে । মৃত্যু কালে তার বয়স হয়েছিল ৭৬ বছর। পরিবারের সুত্রে এই সংবাদ প্রকাশ করেছে  বিবিসি

স্টিফেন হকিং একজন পদার্থ বিজ্ঞানী ছিলেন । তিনি পৃথিবীর সেরা মহাকাশবিজ্ঞানীদের একজন, তিনি লিখেছেন বেশ কয়েকটি বই । যার মধ্যে  ‘আ ব্রিফ হিস্ট্রি অব টাইম’ সর্বকালের সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় বই ।

স্টিফেন হকিং এর তিন জন সন্তান রয়েছে। যাদের নাম লুসি, রবার্ট ও টিম। তাঁরা তাদের বাবার মৃত্যুতে গভীরভাবে শোক প্রকাশ করেন। তারা  বলেছেন আমরা গভীর শোকের সঙ্গে জানাচ্ছি যে আমাদের প্রিয় বাবা আজ মারা গেছেন।

মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলায় আল-আমিন ফকির (২৩) নামের এক যুবকের লাশ উদ্ধার করা করেছে পুলিশ। আল-আমিন ফকির মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলার বাঁশগাড়ী ইউনিয়নের মধ্যের চর আলম ফকির এর ছেলে। কালকিনি থানা পুলিশ বাঁশগাড়ী ইউনিয়নের ভাধুরী গ্রাম এর ফসলি জমি থেকে তার লাশ উদ্ধার করে । তার এ হত্যার সাথে কারা জড়িত সে সম্পর্কে কিছুই জানা যায়নি । তবে এলাকাবাসী মনে করেন ২৫ হাজার টাকা চাঁদা না দেয়ায় চাঁদাবাজ সন্ত্রাসীরা তাকে হত্যা করে ।


ছবি ও সংবাদঃ সুইটি আক্তার ময়না
মাদারীপুর জেলার সদর থানাধীন বাহাদুরপুর ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডবাসীর সহযোগীতায় কাঠের পুল নির্মাণ করা হয়। আলগী থেকে তিথিরপাড়া যাওয়ার একমাত্র ব্রীজ (আকা বেপারীর ব্রীজ নামে পরিচিত) ভেঙ্গে ফেলার কারনে তিথিরপাড়া,কালাপুর, দিঘলপাড়া,পূর্ব দৌলতপুর, খাটপাড়া এলাকার কয়েক হাজার জনগণের যাতায়াতে মারাত্মকভাবে সমস্যার সৃষ্টি হয়। উল্লেখ্য উক্ত গ্রামগুলোর কয়েকশ ছাত্রছাত্রী আলগী প্রাথমিক ও হাই স্কুলে এবং জেলা সদরের নাজিমুদ্দিন ও চরমুগরিয়া কলেজে পড়াশুনা করে। প্রতিদিন কয়েক হাজার লোক এই ব্রীজ দিয়ে কালিরবাজার,চরমুগরিয়া,মাদারীপুর, নতুন রাজারহাট, হবিগঞ্জহাট,ত্রিভাগদীহাট,ঘটকচর যাতায়াত করে। অসুস্থ রোগীদের জেলা সদরের হাসপাতালে নেওয়ার একমাত্র পথ।


এই ব্রীজটাই ছিল অত্র এলাকাবাসীর যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম। একটা ব্রীজ ভেঙ্গে নতুন ব্রীজ করতে হলে জনগণের চলাচলের জন্য বিকল্প ব্যবস্থা অবশ্যই ইউনিয়ন পরিষদ বা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ থেকে করে থাকে। ইউনিয়ন পরিষদের ওয়ার্ড মেম্বার ও চেয়ারম্যানের থেকে কোন প্রকার সাহায্য,আশ্বাস ও সহযোগীতা না পেয়ে পরপর্তীতে অত্র এলাকাবাসী সবাই মিলে নিজেদের অর্থের দ্বারা (২০০,৩০০,৫০০,১০০০,২০০০ টাকা করে চাদা তুলে) কাঠের পুল নির্মাণ করেন। কাঠের পুল নির্মাণে তিথিরপাড়া নিবাসী মোঃ আলী ফকির,সাবেক মেম্বার মোস্তফা হাং,সাইদুল বেপারী,দেলোয়ার বেপারী,পূর্ব দৌলতপুরের নূরুল হক বেপারী,পায়েল বেপারী বিশেষ ভূমিকা রাখেন এবং উক্ত এলাকাবাসীর জনগণও সার্বিক সহযোগীতা করেন। কিন্তু বর্তমান মেম্বার ও চেয়ারম্যানের ভূমিকায় এলাকাবাসী বিস্মিত ও হতবাক ।



নাইম হোসেন সেলিম


দুরন্ত বার্তা

বাংলাদেশের ক্রিকেট খেলার ইতিহাস


পূর্ব বাংলায় ক্রিকেটঃ


অষ্টাদশ শতকে ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি বাংলায় প্রথম ক্রিকেট খেলার প্রচলন করে। ১৭৯২ সালে প্রথমবারের মতো ক্রিকেট খেলা আয়োজনের কথা জানা যায়। সম্ভবতঃ আরও একদশক পূর্বে খেলাটি অনুষ্ঠিত হতে পারে। ১৯৩৪ সালে ব্রিটিশ ভারতে অবস্থান করে ভারতীয় ক্রিকেট নিয়ন্ত্রণ বোর্ড রঞ্জি ট্রফি প্রতিযোগিতার প্রচলন ঘটায়। ১৯৩৮-৩৯ মৌসুমে বাংলা শিরোপা লাভ করে। ভারত বিভাজনের ফলে বাংলাও বিভক্ত হয়ে যায়। ১৯৫৪ সালের পূর্ব পর্যন্ত পূর্ব বাংলা আনুষ্ঠানিকভাবে কোন খেলায় অংশ নেয়নি।

পূর্ব পাকিস্তানে ক্রিকেটঃ




১৯৫৪-৫৫ মৌসুম থেকে ১৯৭০-৭১ মৌসুম পর্যন্ত পূর্ব পাকিস্তানের ১০টি প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট দল পাকিস্তানের ঘরোয়া ক্রিকেটে কায়েদ-ই-আজম ট্রফি ও আইয়ুব ট্রফিতে অংশগ্রহণ করেছিল। ১৯৫৪-৫৫ মৌসুমে সফরকারী ভারতীয় একাদশ ও ১৯৫৫-৫৬ মৌসুমে এমসিসি দল পূর্ব পাকিস্তান দলের বিপক্ষে অংশগ্রহণ করে। ভারতীয় একাদশ খেলায় জয় পেয়েছিল।

পাকিস্তানের অংশ হিসেবে থাকায় বাংলাদেশে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট ও টেস্ট ক্রিকেট খেলা আয়োজনের দায়িত্ব পায়। জানুয়ারি, ১৯৫৫ সালে ভারতের বিপক্ষে খেলার জন্য পাকিস্তান দল ঢাকায়অবস্থিত বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম প্রথমবারের মতো ব্যবহার করে। ১৯৭১ সালের স্বাধীনতার পূর্ব পর্যন্ত টেস্টসহ অনেকগুলো গুরুত্বপূর্ণ খেলায় এ স্টেডিয়ামকে ব্যবহার করা হয়েছিল। চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে ১৯৫৪ সালে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট খেলা আয়োজন করা হলেও স্বাধীন বাংলাদেশের টেস্ট মর্যাদা প্রাপ্তির পর ২০০১ সালে টেস্ট খেলা আয়োজনের সুযোগ পায়।




বাংলাদেশ জাতীয় টিম



বাংলাদেশে ক্রিকেটঃ


স্বাধীন বাংলাদেশে ১৯৭২ সালে নিজস্ব ক্রিকেট খেলা আয়োজনের ব্যবস্থা গড়ে উঠে। এ সময়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড প্রতিষ্ঠিত হয়।[১] ১৯৭৪-৭৫ মৌসুমে জাতীয় পর্যায়ের ক্রিকেট প্রতিযোগিতা শুরু হয়।

৩১ মার্চ, ১৯৮৬ তারিখে পূর্ণাঙ্গ শক্তিধর ও টেস্টখেলুড়ে পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথমবারের মতো একদিনের আন্তর্জাতিকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে। দলের অধিনায়ক গাজী আশরাফ হোসেন লিপু'র নেতৃত্বে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল মাত্র ৯৪ রানে গুটিয়ে যায়। সাত উইকেট হাতে রেখেই পাকিস্তান কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌঁছে।

২৬ জুন, ২০০০ সালে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের পূর্ণাঙ্গ সদস্যের মর্যাদা লাভ করে।[২] বোর্ডের নাম পরিবর্তিত হয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড নামকরণ হয়।[৩] ১০-১৩ নভেম্বর, ২০০০ সালে বাংলাদেশ দল বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে উদ্বোধনী টেস্টে ভারতের মুখোমুখি হয়। খেলায় ভারত দল নয় উইকেটে জয় পায়।

তথ্যসূত্রঃ উইকেপিডিয়া

ঢাকা থেকে নেপালের উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়া ইউ এস বাংলার একটি উড়োজাহাজ কাঠমান্ডুতে বিধ্বস্ত হয়েছে।


আজ সোমবার কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের রানওয়েতে বেলা ২ঃ০০ ঘটিকার সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে জানা যায় । তবে প্রাথমিকভাবে বিধ্বস্ত হওয়ার কারণ জানা যায়নি।

দুপুর ১২টা ৫১ মিনিটে ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ৭১ জন আরোহী নিয়ে এটি ছেড়ে যায়। নেপালে পৌঁছানোর পর স্থানীয় সময় ২টা ২০ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় ৩টা ৫ মিনিট) এটি বিধ্বস্ত হয়।

নেপালের বিমান কর্তৃপক্ষ ধারণা করছে অবতরনের সময় কোনো যান্ত্রিক ত্রুটি থাকার কারনে হয়তো এটি বিধ্বস্ত হয়ে থাকতে পারে । তবে এ ব্যাপারে এখনো কোনো সঠিক কারণ জানা যায় নি। নেপালের এক সংবাদপত্র মারফত জানা যায় এ যাবত ১৭ জন যাত্রীকে উদ্ধার করে বিভিন্ন হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে । বিমানটিতে ৭১ জন আরোহি ছিল জার মধ্যে যাত্রী ছিল ৬৭ জন । বিমানের অন্যান্য যাত্রীদের উদ্ধারের কার্যক্রম চলছে ।

ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের মুখপাত্র প্রেম নাথ ঠাকুর বলেন, অবতরণের সময় উড়োজাহাজটিতে আগুন ধরে যায়। পরে বিমানটি পাশের একটি ফুটবল মাঠে গিয়ে পড়ে।

রমকালে বেশি ঘাম হয় এবং শরীর ভেজা থাকে। ঘাম এবং ভেজা শরীরে ত্বকের ছত্রাক সংক্রমণ হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। ছত্রাকজনিত চর্মরোগ যেমন দাউদ, ছুলি ও ক্যানডিডিয়াসিস বেশি পরিলড়্গিত হয় যা মূলত ত্বকের বাইরের অংশকে আক্রমণ করে যা স্যাঁতস্যাঁতে, নোংরা, ঘর্মাক্ত দেহে সবচেয়ে বেশি দেখা যায়।

 

ছুলিঃ ত্বকের ক্ষতিকারক ছত্রাক প্রদাহ যা অনেকদিন যাবৎ এই রোগের লক্ষণ দেখা দিতে পারে। গ্রীষ্মকালে এই প্রদাহ বেশি দেখা যায়। শরীরের প্রায় সকল জায়গায় সাদা বা বাদামী রংয়ের গোলাকৃত বা বিভিন্ন আকৃতির এই রোগ দেখা যায়। এতে কোন রকম ব্যথা বা জ্বালাপোড়া এসব কিছুই থাকে না। বিভিন্ন রোগের সঙ্গে এ রোগের মিল রয়েছে যেমন শ্বেতী রোগ,লেপরসি, টিনিয়াকরপরিস ইত্যাদি।


দাউদঃ শরীরের যে কোন স্থানে গোলাকার চাকা দেখা দিতে পারে। তবে সাধারণত তলপেট, পেট, কোমর, নিতম্ব, পিঠ, মাথা, কুঁচকি ইত্যাদি স্থানে বেশি দেখা যায়। আক্রমণের স্থান লক্ষ্য করে একে স্থান ভিত্তিক বিভিন্ন নামে নামকরণ করা হয়।


রোগ নির্ণয়ঃ ত্বকের ফাঙ্গাস পরীক্ষার মাধ্যমে এ রোগ খুব সহজেই নিরূপণ করা সম্ভব।


ক্যানডিডিয়াসিসঃ এটি একটি ছত্রাকজনিত চর্মরোগ যাদের শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম, যেমন- শিশু, বৃদ্ধ কিংবা রোগাক্রান্ত ডায়বেটিসে আক্রান্ত, দীর্ঘদিন ধরে যারা স্টেরয়েড জাতীয় ঔষধ ব্যবহার করেছেন কিংবা যাদের ত্বকের খাঁজ ঘামে সব সময় ভেজা থাকে তাদেরই এই রোগটি বেশি হয়। আবার যারা সব সময় পানি নাড়াচাড়া করেন তাদের আঙুলের ফাঁকে, হাতের ভাঁজে,শিশুদের জিহ্বায়, মহিলাদের যোনিপথে এবং গর্ভবতী মহিলারা এতে বেশি আক্রান্ত হয়ে থাকেন। এতে ত্বকের আক্রান্ত স্থান লালচে ধরনের দেখা যায় এবং সাথে প্রচণ্ড চুলকাতে থাকে।



তথ্য: তথ্য আপা প্রকল্প
জিয়া অরফানেজ মামলায় বেগম খালেদা জিয়াকে ৪ মাসের জামিন দিয়েছে হাইকোর্ট ।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে বেগম খালেদা জিয়া এই মামলায় ৫ বছর সশ্রম কারাদণ্ডের সাজায় জেল হেফাজতে থাকছেন । জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পাঁচ বছরের কারাদণ্ডের বিরুদ্ধে ২০ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্টে আপিল করেন তার আইনজীবীরা। আপিল আবেদনে নিম্ন আদালতের দণ্ড থেকে খালাস চেয়ে ৪৪টি যুক্তি দেখানো হয়। পরবর্তীতে যুক্তি কমিয়ে ৩৭ টি যুক্তি দেখিয়ে তার জামিনের জন্য আবেদন করেন । ২২ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়ার আপিল শুনানির জন্য গ্রহণ করেন হাইকোর্ট। গত ১১ মার্চ তার আপিলের শুনানির দিন পিছেয়ে সোমবার করা হয় । তার ধারাবাহিকতায় আজ তাকে ১২ মার্চ ৪ মাসের জন্য জামিন দেয় হাইকোর্ট ।




গত ৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৫ এর বিচারক ড. আক্তারুজ্জামানের আদালত খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেন। একই আদালত খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানসহ ছয় আসামির সবাইকে ২ কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৪৩ টাকা ৮০ পয়সা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত করেন। এ অর্থদণ্ডের টাকা প্রত্যেককে সমান অঙ্কে প্রদান করতে হবে বলে রায়ে উল্লেখ করা হয়।

ছারছিনা মাহফিলে যাওয়ার পথে পিড়ারহাট সুইচগেইট এর কাছে আনুমানিক সকাল ১০ ঘটিকায় ট্রলার ডুবে এক ব্যাক্তির করুন মৃত্যু। মৃত্যু ব্যাক্তির নাম দেলোয়ার হোসেন (৫০) খোজ নিয়ে জানা যায় তার ববাড়ি মাদারীপুর সদর থানার সুচিয়ার ভাঙা, মস্তফাপুর। পরবর্তীতে আনুমানিক ০১ঃ৩০ ঘটিকায় খুলনা থেকে একদল ডুবুরি এসে মৃত্যু ব্যাক্তির লাশ উদ্ধার করেন। আমাদের দুরন্ত মাদারীপুর এর নেতৃত্বদানকারী এডমিন মোঃ কামরুল হোসেন একই ট্রলারে যাত্রী হিসেবে ছারছিনা যাচ্ছিলেন। খোজ নিয়ে জানা যায় কামরুল সহ বাকি যাত্রীরা নিরপদে আছেন। বাকি সবাই কে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে ।

প্রতি বছর ছারছিনা মাহফিলে মাদারীপুর এর মস্তফাপুর থেকে প্প্রায় অর্ধশতাধিক ট্রলারে হাজার হাজার মানুষ ছারছিনা মাহফিলে যোগদান করে ।


কবির হোসেন


দুরন্ত বার্তা

ঠাৎ করে রাজধানির মিরপুর বস্তিতে মাঝরাতে ভয়াবহ আগুন !! ১১ মার্চ রবিবার মাঝ রাতে মিরপুর ১২ নম্বরের ইলিয়াস আলী মোল্লা বস্তিতে এই ভয়াবহ আগুন লেগেছে। সেখানে আগুনের ভয়াবহতা এতই তীব্র ছিল যা নিয়ন্ত্রণে আনতে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের ২০টি ইউনিট। এই ঘটনায় সেখানের মানুষের মধ্যে তাৎক্ষনিক আতংকের সৃষ্টি হয় । তারা এদিক ওদিক ছোটা ছুটি করতে থাকে । আসে পাশের বসবাসকারী জনগন ও তখন নিজেদের প্রয়োজোনিয় কাগজ পত্র নিয়ে ছোটা ছুটি করে। আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে ২০টি ইউনিট ৩ ঘন্টা যাবত তৎপর ছিল ।  ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স কন্ট্রোল রুমের ডিউটি অফিসার মাহফুজুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।



আমাদের সংবাদকর্মী জানান ১১ মার্চ রবিবার রাত ৪টার দিকে এই আগুন লাগে ইলিয়াস আলী বস্তিতে। আগুন লাগার পর মুহূর্তের মধ্যে তা ছড়িয়ে পড়ে গোটা বস্তিতে। আগুন লাগার পর দুই ঘণ্টা চেষ্টা করেও আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে পারেনি ফায়ার সার্ভিসের ৮ টি ইউনিট। তখন তাদের সাথে যোগ দেয় আরো ৫ টি ইউনিট । কিন্তু তাতেও আগুন নিয়ন্ত্রণ আনতে পারে নি। কাজেই আরো ৩ টি ইউনিট যোগ দেয় তাদের সাথে। তাতেও নিয়ন্ত্রণে আসেনি ইলিয়াস আলী বস্তির আগুন । সর্বশেষ ভোর ৫ টার দিকে ২০ টি ইউনিট এক যোগে আগুন নিয়ন্ত্রণ আনার কাজ চালায় । তাদের আগুন নিয়ন্ত্রণ আনতে ৪ ঘণ্টার মত সময় লেগে যায় । এতে বস্তি যেন পুড়ে জাওয়া ছাই এর স্তুপে পরিনত হয় । আগুন লাগার কারণ ও ক্ষতির পরিমাণ জানাতে পারেনি ফায়ার সার্ভিস । ৭০ বিঘা জমির উপর গড়ে ওঠা এই বস্তিতে প্রায় সাত হাজার টিনের ঘর রয়েছে । সেখানে বসবাস করে প্রায় ২৫ হাজার মানুষ । তবে এখনো পর্যন্ত কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায় নি ।

 

মিমজাল হোসেন অনিক


দুরন্ত বার্তা, ঢাকা



মাদারীপুরে বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠানের সামনে দিনদুপুরে চলছে স্কুল পড়ুয়া ছাত্রছাত্রীর চলছে নোংরামি। এগুলো দেখার যেন কেউ নেই। মাদারীপুর জেলার শহরে বিভিন্ন পার্কে গেলে এসব দৃশ্য চোখে পড়ে। শকুনি লেক, বিভিন্ন স্কুল কলেজ এর আশেপাশে লঞ্চঘাট, ট্রলারঘাট আর বিভিন্ন পার্কে চলছে অহরহ এসব নোংরামি।  এসব এলাকাজুড়ে মানুষ হাটতে গিয়ে এরকম দৃশ্য দেখে লজ্জায় অন্যদিক তাকিয়ে থাকতে হয়। মাদারীপুর এর নাজিমুদ্দিন কলেজের মাস্টার্স পড়ুয়া এক ছাত্রী জানান এসব স্কুল পড়ুয়া ছেলেমেয়েদের দেখলে সত্যি লজ্জায় পড়তে। অথচ এই এলাকায় জেলা শহরের শতাধিক স্কুল কলেজ রয়েছে । সেখানে প্রতিনিয়ত ছোটো ছোটো ছেলে মেয়েরা যাতায়াত করে । এই সব দৃশ্য দেখে তাদের মানসিকতা আর শিক্ষার যে অবনতি ঘটছে, তার জন্য দায়ি এই ছাত্র ছাত্রি নামের নোংরা ছেলে মেয়েরা । মাদারীপুর এর গুরুত্ত পূর্ণ স্থান সমূহে এসব দর্শনীয় স্থান গড়ে তোলার উদ্দেশ্য ছিল সাধারণ জনগণের বিনোদনের ব্যাবস্থা করা । কিন্তু সেই বিনোদন এখন সমাজ নষ্টের অন্যতম কারন হয়ে দাঁড়িয়েছে । এভাবে যদি চলতে থাকে, তাহলে এই এলাকার ছেলেমেয়েদের মাঝে সামাজিকতা বলতে আর কিছু থাকবে না বলে মনে করেন অনেকে । কাজেই এই সব অসঙ্গতিপূর্ণ কাজ অপসারণের লক্ষে প্রশাসনের কাছে নজরদারির আশা করেন সাধারন জনগন ।







কবির হোসেন

দুরন্ত বার্তা
ত্তর দুধখালী ৭নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা, মোঃ ইসলাম চৌকিদারের বাড়িতে অনাকাঙ্ঘিক্ত আগুন লেগে তার বসতী ঘর পুড়েগেছে। সেই সাথে ঘরের যাবতীয় মালমাল পুড়ে হয়েছে ছাই। চেষ্টা করেও কিছুই আর ধরে রাখতে পারেনি। তাদের পরিবারে নেমে এসেছে শোকের ছায়া । আল্লাহ তাদের মানসিক ভাবে শান্ত রাখুন।

দুরন্ত মাদারীপুরের পক্ষ থেকে তার প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করা হয় ।সেই সাথে দোয়া করা হয় ।  আল্লাহ তাকে উত্তম প্রতিদান বিনিময় প্রদান করুন,আমিন।



ছবি ও সংবাদ

নাইম ইসলাম সেলিম
নারী দিবসে নারীদের প্রতি সম্মান প্রদান পূর্বক দুরন্ত মাদারীপুর সংগঠনদের এ্যাডমিন প্যানেলের অনেকেই বিভিন্ন মন্তব্য লেখেনে । দুরন্ত মাদারীপুর এর সাধারণ সম্পাদক সফিকুল ইসলাম রাজিব লিখেন


আজ আন্তর্জাতিক নারী দিবস। নারীদের উদ্দেশ্যে আমার পছন্দের কয়েকটি সেরা উক্তি,,,
১। মায়ের পায়ের নিচে সন্তানের বেহেশত।
২। জননী ও জন্মভূমি স্বর্গাদপী গরীয়সী।
৩। এ বিশ্বে যা কিছু সৃষ্টি চির কল্যাণকর, অর্ধেক তার আনিয়াছে নারী অর্ধেক তার নর।
৪। যে রাধে, সে চুলও বাধে।
৫। ওগো নারী, শ্রেষ্ঠ তুমি অবনীর। গোলাপে গঠিত যেন ভিতর ও বাহির। মনে মনে সবিষয়ে তাই মনে হয়, তুমি তো গোলাপ ছাড়া অন্যকিছু নও।
৬। নারীর মন, প্রীতির বন। মায়ার বাধন, করে আকর্ষণ।
৭। মা বলিতে প্রাণ, করে আনচান। বাংলার বধু, বুক ভরা মধু। জল নিয়ে যায় ঘরে।
৮। যে দোলনা দোলাতে পারে, সে বিশ্বও শাসন করতে পারে।
৯। যে নারী অন্য নর ও নারী জন্ম দিতে পারে, তার জন্য এমন কি অসম্ভব কাজ আছে, যা সে পারে না?
১০। আমার সেরা উক্তি, আমাকে একটি শিক্ষিত মা দাও, আমি তোমাকে একটি শিক্ষিত জাতি দিব।



নারী দিবস উপলক্ষে পরচার সম্পাদক নাইম ইসলাম সেলিম লিখেছেন একটি কবিতা ।


"তুমি নারী,
তুমি মমতার ভান্ডারী,
তুমি জননী,
তুমি নারী,
তুমি প্রেমের হিমাদ্রী,
তুমি তরুনী।






সন্তানের কান্না থামাও,বুকে জড়াও তুমি,
স্নেহ ভরা মায়া ভরা তুমি মা।

সহ্য করেছ জনম ভর,পেয়েছো কী তাতে আর?
তুমি নারী বলেই এতো সহ্য ক্ষমতা তোমার।"


শুধু নারী দিবসে নয় । সর্বদা নারীদের অধিকার আদায়ে পাশে থাকবে দুরন্ত মাদারীপুর গ্রুপ । 

মিমজাল হোসেন অনিক


দুরন্ত বার্তা, ঢাকা



৯৮৪ সালের ১লা মার্চ মাদারীপুর জেলার জন্ম হয় ।
মাদারীপুর এর জন্মদিন উপলক্ষে দুরন্ত মাদারীপুর দিবসটিকে "" মাদারীপুর দিবস"" হিসেবে ১ম বারের মত উদযাপন করে । দুরন্ত মাদারীপুর এর যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক হিসেবে এই দিন কে জেলা পর্যায়ে সর্ব স্তরের জনগনকে উদযাপন করার জন্য আহ্বান জানায় মিমজাল হোসেন অনিক । তিনি বলেন মাদারীপুরের ৮০-৯০% মানুষ জানে না কি ভাবে মাদারীপুর এর জন্ম ।


জেলা শহরের ইতিহাস প্রতিটি জেলাবাসীদের জন্য অহংকার । কাজেই প্রতেকের কাছে মাদারীপুর এর ইতিহাস তুলে ধরতেই দুরন্ত মাদারীপুর এর এই আয়জন। সেই সাথে এই দিবসকে মাদারীপুর দিবস হিসেবে উদযাপন করার লক্ষে জেলা প্রশাসকের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন । এই সংগঠনটির প্রধান সমন্বয়ক কবির হোসেন জানান এর আগে কেউ ১মার্চ কে মাদারীপুর দিবস হিসেবে পালন করেনি । তারাই প্রথম বারের মত দিবসটিকে মাদারীপুর দিবস হিসেবে পালন করেন ।


উল্লেখ্য যে দুরন্ত মাদারীপুর একটি সমাজ সেবা মূলক সংগঠন । এই সংগঠনটি দীর্ঘদিন যাবত সমাজের বিভিন্ন স্তরের অসহায় মানুষের সেবা করে আসছে । এই সংগঠনের পরিচালনা পর্ষদে এখন ২০ জনের ও বেশি সদস্য রয়েছে ।




মিমজাল হোসেন অনিক

দুরন্ত বার্তা, ঢাকা

হাজার বছ‌রের শ্রেষ্ঠ বাঙা‌লি, জা‌তির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মু‌জিবুর রহমা‌নের ঐ‌তিহা‌সিক ৭ মা‌র্চের ভাষণ‌ (জা‌তিসং‌ঘের ইউ‌নে‌স্কো কর্তৃক বি‌শ্ব ঐ‌তি‌হ্যের অন্যান্য দ‌লিল হি‌সে‌বে ঘোষিত) উপল‌ক্ষে বাংলা‌দেশ আওয়ামী লীগ আ‌য়ো‌জিত আজ‌কের ৭ মা‌র্চের জনসভা আ‌রো এক‌টি স্মরণীয় দিন হয়ে র‌বে।





আওয়ামী লী‌গ ও এর স‌হযোগী অঙ্গ সংঘট‌নের কেন্দ্র থে‌কে তৃণমূ‌লের ত্যাগী নেতাকর্মী‌দের প্রত্যক্ষ অংশগ্রহণে মাধ্যমে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান প‌রিণত হ‌য়ে‌ছিল জনসমু‌দ্রে। আওয়ামী লী‌গ সভানেত্রী, বঙ্গবন্ধু কন্যা, প্রধানমন্ত্রী জন‌নেত্রী দেশরত্ন শেখ হা‌সিনার উপ‌স্থি‌তে সেই জনসমু‌দ্রে আ‌নন্দের‌ জোয়ার ব‌য়ে গি‌য়ে‌ছে।
এই ঐ‌তিহা‌সিক জনসভা‌ সফল ও স্বার্থক ক‌রে তোলার জন্য বাংলা‌দেশ ছাত্রলী‌গের নেতাকর্মীদের তৎপরতা ছিল দিনভর । ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে আর্মি স্টেডিয়ামে আয়োজন করা হয় জয় বাংলা কনসার্ট, সেখানে দেশের শীর্ষস্থানীয় কণ্ঠ শিল্পীরা গান পরিবেশন করেন ।





মিমজাল হোসেন অনিক


দুরন্ত বার্তা, ঢাকা

লতি মাসের শেষ দিকে ছাত্রলীগের কেন্দ্রিয় কমিটির সম্মেলন হওয়ার কথা ছিল । এ ব্যাপারে অনেক কথার ছড়াছড়ি দেখেছে অনেকেই । এমনকি সম্মেলনের তারিখ সহ সংবাদও এসেছে । কিন্তু সে সব তথ্যকে বিভ্রান্তিকর সংবাদ বলে মন্তব্য করেছেন ছাত্রলীগের অনেক নেতা ।

সরকারি তিতুমির কলেজ ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মারুফ হোসেন এ ব্যাপারে বলেন এসব কথা বানোয়াট ও ভিত্তিহিন । আগামী নির্বাচনের আগে কেন্দ্রিয় কমিটির কোনো সম্মেলন হবে না। আর যারা এই সব খবর ছড়িয়েছে তারা বিভ্রানিতকারি । আগামি নির্বাচন সোহাগ-জাকির পরিষদের অধিনেই অনুষ্ঠিত হবে । সেই লক্ষে সকল নেতাকর্মীদের নির্বাচনের প্রস্তুতি নেয়ার জন্য আহ্বান জানান ।